‘শহর আমার, দায়িত্ব আমার’

Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা, ৪ জুন : জীবনযুদ্ধে জয়ী হওয়ার লক্ষ্যে ছুটে চলেছে রাজধানীবাসী। গন্তব্যে পৌঁছতে ব্যস্ত আর বিরূপ আবহাওয়ায় ক্লান্ত এসব নগর পথিককে চলার পথে গাছের নিচে একটু বসে জিরিয়ে নেয়ার জন্য কংক্রিটের ঢাকা শহরে এখন অবশিষ্ট আছে কিছু পার্ক। যার মধ্যে রাজধানীর ব্যস্ত ও জনসমাগমপূর্ণ স্থানে অবস্থতি ফার্মগেট পার্কটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু ময়লা আবর্জনা, অব্যবস্থাপনা, নিরাপত্তাহীনতাসহ নানা সমস্যায় পার্কটি সাধারণ মানুষের ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।

যেহতু এমন প্রাকৃতিক অবকাশ কেন্দ্রের আর বিকল্প নাই, তাই নাগরিকদেরকে সঙ্গে নিয়ে মেয়রের উদ্যোগে পার্কটির দুরাবস্থা দূরীকরণের পদক্ষেপ নেয়া জরুরি বলে মনে করছেন পরিবেশবাদীসহ স্থানীয় জনগণ।

এর প্রেক্ষিতে পার্কের ব্যবহারকারী হিসেবে সবার দায়িত্বশীলতার প্রতি আহ্বান জানিয়ে বৃহস্পতিবার ফার্মগেট পার্কে পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা) ও বারসিক যৌথভাবে এক প্রচারাভিযান চালায়।

‘শহর আমার, দায়িত্ব আমার’ শ্লোগানে শুরু হওয়া এই প্রচারাভিযানের মাধ্যমে শুধু ফার্মগেট পার্ক নয়, সারাদেশের পরিবেশ উন্নয়নে নাগরিকদের দায়িত্বশীল ভূমিকার আহ্বান জানানো হয়েছে।

প্রচারাভিযানের উদ্বোধন করেন পবার চেয়ারম্যান আবু নাসের খান। প্রচারে অনুপ্রাণিত হয়ে তেজগাঁও কলেজের একদল শিক্ষার্থী ফার্মগেট পার্কটি রক্ষায় দায়িত্বশীল ভূমিকা নেয়ার প্রতিশ্রুতিও জানায়।

অভিযানে পরিবেশবিদরা বলেন, শহরকে সবুজময়, দূষণমুক্ত এবং নিরাপদ রাখার দায়িত্ব সবার, শুধু সরকার বা সিটি করপোরেশনের নয়। দায়িত্ববোধের জায়গা প্রসারিত করে নাগরিক হিসেবে সবাইকে নিজ অবস্থানে থেকে দায়িত্ব পালন করতে হবে। প্রত্যেকেই পরিবেশ রক্ষায় ন্যূনতম দায়িত্ব পালন করলে ঢাকা শহরও বাসযোগ্য হয়ে উঠবে।

ফার্মগেট পার্কটিতে নানা অনুষ্ঠান আয়োজনের মাধ্যমে জনসাধারণের ব্যবহারের অনুপযোগী শুধু নয়, প্রবেশাধিকারও ক্ষুণ্ণ করা হয়। এছাড়াও গাছ কেটে ফেলাসহ বিভিন্নভাবে পার্কটির স্থায়ী ক্ষতি করা হচ্ছে।

সরেজমিন পর্যবেক্ষণে দেখা যায় যে, পার্কের পশ্চিম দিক গাছশূন্য হয়ে গেছে, অনেক গাছ মরে যাচ্ছে। এমন কি গাছগুলোর মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধান করতে কোনো পদক্ষেপও নেয়া হচ্ছে না।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ফার্মগেটের মতো জনসমাগমপূর্ণ এলাকার এই পার্কটি সন্ধ্যার সাথে সাথে নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়ে। মাদকসেবী ও ছিনতাইকারীদের দৌরাত্ম বেড়ে যায়। এখানে কোনো নিরাপত্তা ব্যবস্থাও নেই।

মহানগরী ঢাকায় যখন একটু ফাঁকা জায়গার ভীষণ অভাব সেখানে ফার্মগেট পার্কটি আশির্বাদ হিসেবে কাজ করতে পারে। সব বয়সীদের শরীরচর্চা, বিনোদনসহ পরিবেশ উন্নয়নে পার্কটির দুরাবস্থা দূরীকরণে জনসাধারণের সচেতনতার মাধ্যমে দায়িত্বশীল ভূমিকা যেমন জরুরি তেমনিভাবে পার্কটি রক্ষায় মেয়রকেও কার্যকরী উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে।

যেহতু নির্বাচনী ইশতেহারে পরিবেশের ওপর খুব গুরুত্ব দিয়েছিলেন সিটি মেয়ররা। তাই বিপন্ন আবহাওয়ায় ক্লান্ত নগরবাসীকে বৃক্ষছায়ায় বসে সুন্দর আগামীর ভাবনা ভাবার সুযোগ করে দিতে শিগগিরি ঢাকার সব পার্ক রক্ষার উদ্যোগ নিতে হবে সিটি মেয়রকেই। বিশ্ব পরিবেশ দিবসকে ঘিরে এমনটাই আশা করছেন নগরবাসীসহ পরিবেশবিদরা।

সবুজপাতা প্রতিবেদন

Comments