ইঞ্জিয়ারিং পড়া বাদ দিয়ে গুড় বানিয়ে কোটিপতি!

সবুজপাতা ডেস্ক, ১৬ মার্চ: যৌবনে কত ভাবনাই না মাথায় আসে । রোমাঞ্চকর কতো কিছুই না উকি দেয় মনে । তাই বলে ইঞ্জিনিয়ারিং বাদ দিয়ে গুড় তৈরি ? হ্যাঁ এমনটি ঘটেছে ভারতের পুনেতে। শুধু তাই নয় সাফল্যও ধরা দিয়েছে । গুড়ের ব্যবসা করেই বনে গেছেন কোটিপতি।

ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়া  ১৮ বছর বয়সি ছাত্র অনিকেতের  হটাৎই মাথায় আসে অভিনব ব্যবসার কথা। পাঠচুকে  ইঞ্জিয়ারিং পড়া। গুড়ের ব্যবসা করে ২১ বছরের অনিকেত আজ কোটিপতি   ।

ভারতের পুনের বাসিন্দা অনিকেত আঠারোতেই ঠিক করেন ‘বাণিজ্যে বসতে লক্ষ্মী’ কথাটিকে সঠিক প্রমাণ করবেন। পরিবারের সঙ্গে রীতিমতো ঝগড়া করেই ইঞ্জিনিয়ারিং পড়া ছেড়ে শুরু করেন ব্যবসা। প্রথম বছর ১০ লক্ষ টাকা পুঁজি নিয়ে নামেন তিনি।

কিন্তু শুরুতেই বড় লোকসানের মুখে পড়তে হয় তাঁকে। পরের বছর তিনি আশেপাশের আখ চাষি ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ব্যবসা নিয়ে খুঁটিনাটি জিনিস বুঝতে শুরু করেন। বুঝে ফেলেন আঁখ আর গুড় ব্যবসার সব খুঁটিনাটি।

শুধু তাই নয়, নিজে হাতে কলমে তার প্রয়োগ করতে শুরু করেন অনিকেত। ফল মেলে হাতেনাতে। প্রায় ১৫০ টন গুড় উত্পাদন করে কিছু প্রযুক্তিগত পরিবর্তন এনেই পরের বছর বিরাট অঙ্কের মুনাফা করেন তিনি। এখন ব্যবসা শুরুর তিন বছরের মাথায় বিশ্বের ১৪টি দেশে গুড় রপ্তানি করছে তাঁর সংস্থা।

আজ তার সংস্থার ব্যবসা প্রায় কয়েক কোটি টাকার। মুম্বই-সহ ভারতের অনেক বড় শহরেই তাঁর কারখানা থেকেই গুড় জোগান দেওয়া হয়। অনিকেতের উদ্যোগে সাফল্যের মুখ দেখেছেন আশেপাশের গ্রামের চাষিরাও। ২০০-র বেশি আখ চাষি তাঁকে আখ বিক্রি করেন। এতে লাভের মুখ দেখেছেন তারাও।

সুত্রঃ এমটিনিউজ

scroll to top