HomePosts Tagged "রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র"

ঢাকা : তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেছেন, ‘ঠিকঠাকভাবে গণভোট হলে সুন্দরবনের পাশে কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণকে দেশের ৯৯ ভাগ মানুষ সমর্থন দেবে না। কারণ সরকারের সুন্দরবনবিনাশী একগুঁয়ে তৎপরতার কারণে দেশের ভয়াবহ ক্ষতি হবে। তাই অবিলম্বে সরকারকে রামপাল

ঢাকা:  জাতীয় স্বার্থ বিসর্জন দিয়ে করা রামপাল চুক্তি বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য রাজনৈতিক দলসহ সবার প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়েছেন কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবু জাফর আহমদ।তিনি বলেছেন, জনগণকে ধোঁকা দিয়ে সরকার চোরাই পথে রামপাল চুক্তি করেছে। সরকারি বিদ্যুৎকেন্দ্র সংস্কার না শুধুমাত্র ব্যক্তিগত

ঢাকা : অবিলম্বে সুন্দরবনের পাশে রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্প বাতিলের দাবি জানিয়ে চুক্তিটি ‘চুপিসারে’ হওয়ায় প্রশ্ন তুলেছেন সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক সুলতানা কামাল।এ প্রকল্পকে ‘আত্মঘাতী’ উল্লেখ করে দ্রুত এটি স্থগিতেরও আহ্বান জানান তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক এ উপদেষ্টা।মঙ্গলবার (১২ জুলাই) রামপাল কয়লা ‍বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে মূল

বাগেরহাটঃ বাগেরহাটের রামপালে বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সুপার পাওয়ার কয়লা ভিত্তিক তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রে ৩০ জনকে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে প্রাথমিক কাজ উদ্বোধন করা হয়েছে।সামাজিক দায়বদ্ধ প্রকল্পের অধীনে রামপালের ৩০জন যুবক-যুবতীকে বুধবার দুপুরে প্রকল্প এলাকায় ফিতা কেটে এই প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ-ভারত দুই বিদ্যুৎ সচিব।এ সময়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ভারতীয় বিদ্যুৎ

ঢাকাঃ সুন্দরবনের পরিবেশরক্ষায় পাশের এলাকায় বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে আন্দোলনের মধ্যে রামপালে মৈত্রী সুপার থারমাল বিদ্যুৎ প্রকল্পে মূল বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে ভারতীয় একটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি সই হয়েছে।১ দশমিক ৪৯ বিলিয়ন ডলারে এই বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ করবে ভারত হেভি ইলেকট্রিক্যালস লিমিটেড (বিএইচইএল)।মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে

সবুজপাতা ডেস্কঃ পরিবেশ ও বনমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বলেছেন, ‘রামপালে নির্মিতব্য খুলনা ১৩২০ মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের জন্য এখনও পরিবেশ অধিদফতর থেকে পরিবেশগত ছাড়পত্র দেওয়া হয় নাই। পরিবেশগত প্রভাব সমীক্ষা (ইআইএ) প্রতিবেদনে প্রস্তাবিত শর্তগুলো যথাযথভাবে বাস্তবায়িত হলে সুন্দরবনের ক্ষতি হওয়ার কোনো আশঙ্কা নেই।’দশম জাতীয়

ঢাকা, ২০ ফেব্রুয়ারি : সুন্দরবনের কিছু ক্ষতি হলেও রামপাল প্রকল্প থেকে সরে আসবে না সরকার। সরকারের এই অনড় অবস্থানের কথা জানালেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি বলেছেন,  এতো বেশি কয়লা আসবে তাতে প্রতিবেশ-পরিবেশে তো কিছু প্রভাব পড়বেই। কিন্তু বিদ্যুৎকেন্দ্রটি সরিয়ে নেয়ার এখনো কেনো সম্ভাবনা

ঢাকা, ১৮ অক্টোবর: ৩০ নভেম্বরের মধ্যে রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রসহ সুন্দরবন বিধ্বংসী সকল প্রকল্প বন্ধের দাবি জানিয়েছে সিপিবি ও বাসদ। সুন্দরবন রক্ষা অভিযাত্রা শেষে রোববার সকালে ২নং মনি সিংহ সড়কের মুক্তি ভবনের মৈত্রী মিলনায়তনে এর সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানানো হয়।সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাসদ

ঢাকা, ১৭ অক্টোবর: বিশিষ্টি কলামিস্ট ও পরিবেশবাদী সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেছেন, ‘যদি হারিকেন জ্বালিয়ে থাকতে হয় তাতেও রাজি আছি কিন্তু সুন্দরবনকে ধ্বংস করার বিদ্যুৎ আমরা চাই না।’শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গণতান্ত্রিক বামমোর্চা আয়োজিত সুন্দরবন রক্ষায় রামপাল কয়লাভিত্তিক প্রকল্প বাতিলের দাবিতে ১৬ থেকে ১৮ অক্টোবর  ঢাকা-সুন্দরবন রোডমার্চের উদ্বোধনকালে তিনি এ

সবুজপাতা ডেস্ক, ১৬ অক্টোবরঃ  সুন্দরবন অভিমুখী গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার রামপালে কয়লা বিদুৎ প্রকল্প বাতিলের দাবিতে রোডমার্চের মানিকগঞ্জের সমাবেশে পুলিশ লাঠিচার্জ করেছে। এতে সাংবাদিকসহ অন্তত ২০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।শুক্রবার বিকাল ৪টার দিকে এই লাঠিচার্জের ঘটনা ঘটে।আহতের মধ্যে পিপলস্ গণতান্ত্রিক পার্টির সভাপতি মোশরেফা মিশু, দৈনিক আমাদের সময়ের

ঢাকা, ১৫ অক্টোবরঃ ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান বলেছেন, প্যারিস সম্মেলনে যাওয়ার আগেই রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের বিষয়ে একটা সুস্পষ্ট ঘোষণা আসা উচিত। এর প্রভাব সম্পর্কে নিরপেক্ষ আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ দিয়ে পর্যালোচন করা উচিত।বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর ধানমণ্ডির মাইডাস সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা