কক্সবাজারে উপড়ে পড়েছে ঝাউবাগানের দুই শতাধিক গাছ

Print Friendly

সবুজপাতা ডেস্ক, ১৫ জুলাই: বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজারের সবুজ বেষ্টনী হিসেবে পরিচিত ঝাউগাছ সাগরের আগ্রাসনের কবলে পড়েছে। রোববার থেকে শুরু হওয়া পূর্ণিমার জোয়ারের আঘাতে ঝাউবাগানের দুই শতাধিক ঝাউগাছ উপড়ে পড়েছে।

কক্সবাজার আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, রোববার থেকে শুরু হয় পূর্ণিমা। আর পূর্ণিমার ভরা জোয়েরে পানি অস্বাভাবিকভাবে বেড়েছে।

গত দুই দিনের জোয়ারের পানিতে দুই শতাধিক ঝাউগাছ পড়ে গেছে। এসব গাছ বনবিভাগের পক্ষ থেকে কেটে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে বনবিভাগ সূত্র জানিয়েছে।

স্থানীয় লোকজন জানায়, রোববার পূর্ণিমার জোয়ারের ঢেউতে এসব গাছ উপড়ে পড়তে শুরু করে। সোমবার পর্যন্ত ২ শতাধিক গাছ পড়ে যায়। একই সঙ্গে সৈকতের শৈবাল পয়েন্ট, ডায়বেটিক হাসপাতালে পয়েন্ট, সমিতি পাড়া এলাকায় ঢেউর কবলে ব্যাপক ভাঙনের সৃষ্টি হয়েছে। এসব এলাকার কয়েক হাজার ঝাউগাছ উপড়ে পড়ার আংশকা প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রা।

গে

হঠাৎ করে জোয়ারের পানির আগ্রাসনে হারিয়ে যায় ঝাউবাগান

এদিকে, জোয়ারের পানিতে কক্সবাজারের কুতুবদিয়া, মহেশখালী, পেকুয়া, টেকনাফ উপজেলার অর্ধ শতাধিক গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। পেকুয়া উপজেলার উজানটিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে পানি উন্নয়ন বোর্ড়ের বেড়িবাঁধের কয়েক কিলোমিটার এলাকা উপচে সামুদ্রিক জোয়ারের পানি ঢুকে লোকালয় প্লাবিত হয়।

কুতুবদিয়ার উত্তর ধুরুং ইউনিয়ন, মহেশখালীর মাতারবাড়ি ইউনিয়নের ভেঙে তলিয়ে গেছে অনেক বসত-ঘর। টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপের বেড়িবাঁধ বিলীন হয়েছে নতুন করে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৫০টির বেশি চিংড়ি প্রজেক্ট।

Comments