গ্রাম থেকে শহরে পালাচ্ছে মানুষ:জাতিসংঘ

Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা; ১২ জুলাই: জাতিসংঘ প্রকাশিত এ বছরের প্রতিবেদন অনুযায়ী, সারা বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ৫৪ শতাংশ বর্তমানে বসবাস করে শহরে। ১৯৫০ সালে এর হার ছিল মাত্র ৩০ শতাংশ। ভবিষ্যতে শহরমুখী মানুষের এই ঢল আরও বাড়বে। ২০৫০ সালে তা হবে অন্তত ৬৬ শতাংশ। তত দিনে আরও অনেক শহর, মেগাশহর গড়ে উঠবে। বর্তমান শহরগুলো উন্নয়ন ঘটাতে হবে। অতিরিক্ত মানুষের বসবাসের উপযোগী রাখতে শহর উন্নয়নে যুগোপযোগী উদ্যোগ নিতে হবে। এই প্রতিবেদনে বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল শহরের তালিকায় ১১তম স্থানটি দখল করেছে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা। গত বৃহস্পতিবার প্রকাশিত জাতিসংঘের এ প্রতিবেদন অনুযায়ী, জাপানের রাজধানী টোকিও পৃথিবীর সবচে জনবহুল শহর। ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি ২য় আর তৃতীয় স্থানটি দখল করেছে চীনের সাংহাই।

এর আগে ফোবর্স ম্যাগাজিনের গত বছরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী দ্রুত জনসংখ্যা বৃদ্ধির দিক দিয়ে ঢাকা আর ব্যাংকক যৌথভাবে বিশ্বের ৫ম জনবহুল নগরী। ২০৫০ সালের মধ্যে এশিয়ায় বেশির ভাগ মেগাসিটি গড়ে উঠবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ইউএন ওয়েবসাইট ও দ্য নিউইয়র্ক টাইমস এ খবর প্রকাশিত হয়েছে।

Population১৯৯০ সালে থেকে ২০১৪। এর মধ্যে প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে দিল্লীর রাজধানীর জনসংখ্যা ৷ ২০১৪-র ওয়ার্ল্ড আরবানাইজেশন প্রসপেক্টসের রিপোর্ট অনুযায়ী ২০৫০ সালের মধ্যে চীনকেও পিছনে ফেলবে ভারত৷ শহুরে মানুষের সংখ্যায় সবচেয়ে বেশি এগিয়ে যাবে দেশ। ২০৩০ সালের মধ্যেই দিল্লী বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে জনবহুল শহরের তকমা পেয়ে যাবে। দিল্লীর জনসংখ্যা পৌঁছবে ৩৬ মিলিয়নের কাছাকাছি।

 ঢাকার নগর জনমানুষের সংখ্যা যেভাবে বাড়ছে তাতে বিশ্বব্যাংকের আগের এক হিসাব অনুযায়ী ২০২৫ সালের মধ্যে আড়াই কোটিতে পৌছানো কথা। তখন ঢাকা হতে পারে বিশ্বের তৃতীয় জনবহুল শহর। এবছর যে অবস্থান ১১ তম। জাতিসংঘ প্রকাশিত ২০১২ সালের প্রতিবেদন বলছে, আগামী ৪ দশকে আফ্রিকা ও এশিয়ার নগরবাসীর সংখ্যা হবে সারা বিশ্বের শহুরে জনসংখ্যার ৮৬ শতাংশ। প্রতিবেদনে বলা হয়, শহরাঞ্চলে বর্ধিষ্ণু জনসংখ্যার প্রয়োজনীয় কর্মসংস্থান, আবাসন, জ্বালানি ও অবকাঠামো জোগানো দেশগুলোর জন্য বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াবে। পাশাপাশি বাড়বে শহুরে দারিদ্র, বৃদ্ধি পাবে বস্তি ও বস্তিবাসীর সংখ্যা এবং খারাপ হবে শহরের পরিবেশ।

এতে নগরবাসীদের জন্য প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে সৃষ্ট ঝুঁকিও তুলে ধরা হয়। প্রাথমিক বিশ্লেষণের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়, গত বছর ১ মিলিয়ন বা তার বেশি জনসংখ্যা ছিল এমন ৪৫০টি শহর এলাকার মোট জনসংখ্যার ৬০ শতাংশ অন্তত একটি বড় ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগের ঝুঁকির মধ্যে বাস করে।

 এতে বলা হয়, জনসংখ্যা বৃদ্ধি বেশ কটি খাতে চ্যালেঞ্জ সৃষ্টি করলেও পাশাপাশি আফ্রিকা ও এশিয়ার শিক্ষা ও গণসেবা খাতে নতুন সুযোগ বয়ে আনবে। কারণ জনসংখ্যার ঘনবসতির কারণে তাদের কাছে সেবা পৌঁছানো এসব খাতের জন্য সহজ হবে।

 নিজস্ব প্রতিবেদন

Comments