ধানমন্ডি খেলার মাঠ: বিব্রত বিচারপতি

Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা, ৪ মে; ধানমন্ডি খেলার মাঠের নির্মাণকাজ বন্ধের নির্দেশ চেয়ে করা রিট আবেদনের শুনানিতে বিব্রতবোধ করেছেন হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চের একজন বিচারপতি। বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দ সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে আবেদনটি আজ রোববার কার্যতালিকায় ছিল। বেলা আড়াইটার দিকে এ আবেদনের শুনানিতে একজন বিচারপতি বিব্রতবোধ করেছেন জানান দ্বৈত বেঞ্চ। পরে, বিষয়টি প্রধান বিচারপতির কাছে পাঠানোর আদেশ দেয়া হয়।

10248756_10152205980449597_769724638_o

আদালতে রিট আবেদনকারীর পক্ষে ছিলেন আইনজীবী ফিদা এম কামাল ও সারা হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমাতুল করিম। অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা বলেন, ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে একজন বিচারপতি বিব্রতবোধ করে বিষয়টি প্রধান বিচারপতির কাছে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন। ধানমন্ডি খেলার মাঠের নির্মাণ বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে করা রিট আবেদন শুনতে গত ২৮ এপ্রিল অপারগতা প্রকাশ করে তা কার্যতালিকা থেকে বাদ দেন বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি হাবিবুল গনির সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ। এরপর বিষয়টি বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি কাজী ইজারুল হক আকন্দের দ্বৈত বেঞ্চে পাঠানো হয়।

স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন, ইকবাল হাবিব, ফারজানা শাহনাজসহ স্থানীয় ছয় বাসিন্দা ২১ এপ্রিল রিটটি করেন। আবেদনে ধানমন্ডি খেলার মাঠে সব ধরনের নির্মাণকাজ বন্ধে তাত্ক্ষণিক পদক্ষেপ নিতে নির্দেশনা চাওয়ার সঙ্গে ওই চিঠির কার্যকারিতা স্থগিতের আরজি রয়েছে। এ ছাড়া, মাঠের ভেতর চলমান সব ধরনের অবৈধ স্থাপনার নির্মাণকাজ বন্ধে এবং সেখানে থাকা অবৈধ স্থাপনা অপসারণে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে, এ বিষয়ে রুল চাওয়া হয়েছে। উন্মুক্ত স্থান বা খেলার মাঠ হিসেবে ওখানে জনগণের প্রবেশাধিকার নিশ্চিতে পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, এ মর্মেও রুল চাওয়া হয়।

নিজস্ব প্রতিবেদন

Comments