‘সোনারগাঁও হবে পৃথিবীর অন্যতম মডেল পর্যটন কেন্দ্র’

Print Friendly, PDF & Email

সবুজপাতা ডেস্ক,১৯ জুন: বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, ‘সোনারগাঁও হবে পৃথিবীর অন্যতম মডেল পর্যটন কেন্দ্র। সোনারগাঁওয়ের পুরনো ঐতিহ্য ও ইতিহাসকে পুনর্জীবিত করে বাংলার প্রাচীন এ রাজধানীকে একটি আধুনিক পর্যটক নগরীতে গড়ে তোলা হবে।’

তিনি বলেন, ‘ইতিহাস এবং পর্যটনকে এক সাথে আনতে চাই। ইতোমধ্যে আমরা সোনারগাঁওয়ের পুরনো প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনাগুলো সংস্কারের কাজ হাতে নিয়েছি। কাজ শেষ হবে আগামী কয়েক বছরের মধ্যে।’

বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন চত্বর সভাকক্ষে বৃহস্পতিবার সকালে এক মতবিনিময় সভায় এ সব কথা বলেন পর্যটনমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘সোনারগাঁও জাদুঘরের পাশাপাশি পানাম নগরী পুনঃসংস্কার, গোয়ালদী শাহী মসজিদ, নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার হিন্দুদের তীর্থস্থান ব্রহ্মপুত্র নদীর লাঙ্গলবন্দ স্নানঘাট সম্প্রসারণসহ সেখানে আসা তীর্থযাত্রীদের থাকার জন্য আধুনিক হোটেল নির্মাণ ও সোনারগাঁও উপজেলাকে একটি পূর্ণাঙ্গ পর্যটন বলয় হিসেবে তৈরি করা হবে।’

মতবিনিময় শেষে সোনারগাঁওয়ের ঐতিহাসিক সরদার বাড়ির রেস্টুরেন্টের কাজ ও পানাম নগরী পরিদর্শন করেন। এর আগে মন্ত্রী হিন্দু তীর্থস্থান লাঙ্গলবন্দ স্নান ঘাট পরিদর্শন করেন।

মন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব খোরশেদ আলম, নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক আনিসুর ইসলাম মিঞা, প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের উপ-সচিব গাজি ওয়ালিউল হক, সোনারগাঁও লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের পরিচালক রবীন্দ্র গোপ, পুলিশ সুপার ড. মুহিদ উদ্দিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুহিবুল ইসলাম, সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু নাসের ভুঞা, প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের ঢাকা বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক রাখী রায় প্রমুখ।

সবুজপাতা প্রতিবেদক

Comments