নানা গুণের বাঁধাকপি

Print Friendly

সবুজপাতা ডেস্ক,১৯ ফেরুয়ারীঃউজ্জ্বল ত্বক আর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এই দুটোর যুগলবন্দি গুণে বাঁধাকপির জুড়ি নেই। শুধু তাইই নয় উচ্চ পুষ্টিমান সমৃদ্ধ এ সবজিকে প্রাচীন মনিষীরা বলতেন ‘চন্দ্রশক্তি’ সম্পন্ন। তবে আধুনিক পুষ্টিবিজ্ঞান অনুযায়ী প্রচুর সালফার ও ভিটামিন সি-তে ভরপুর এ সবজি। আর সব সবজিই ত্বকের জন্য ভালো তবে সবার চাইতে ভালো এই বাঁধাকপি।

বাঁধাকপি

এমনকি রাশিয়াতে বাঁধাকপিকে জাতীয় খাবার হিসেবে গণ্য করা হয়। কারণ গোটা উত্তর আমেরিকার চেয়ে প্রায় সাতগুণ বেশি বাঁধাকপি রাশিয়ানরা একাই খায়। আবার খ্রিস্টের জন্মের একহাজার বছর আগে চীনে বাঁধাকপি টাক মাথার উপশম করে বলে মনে করা হতো। জেনে নেওয়া যাক এমন নানা গুণে ভরপুর এ সবজির উপকারী দিকগুলো…

– প্রতিকাপ রান্না করা বাঁধাকপিতে আছে মাত্র ৩৩ ক্যালরি খাদ্যশক্তি। এবং কম চর্বি ও অধিক আঁশযুক্ত হওয়ায় ওজন নিয়ন্ত্রনে রাখতেও এর জুড়ি নেই।

– এর ভিটামিন কে এবং অ্যান্থোসায়ানিন মস্তিস্কের কর্মক্ষমতা বাড়ায় ও মনোযোগ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এই পুষ্টিগুণ স্নায়ুক্ষয় রোধ করে এবং অ্যালঝেইমার ও ডিমেনশিয়া রোগের ঝুঁকি কমায়। তবে লাল রঙ্গের বাঁধাকপি এসব পুষ্টিগুণে বেশি সমৃদ্ধ।

– বাঁধাকপির সালফার তৈলাক্ত ত্বকের যত্ন নেয়। আর এটি ক্যারোটিনের অত্যাবশ্যকীয় উপাদান যা চুল, নখ ত্বকের স্বাস্থ্য ধরে রাখে।

– এর ভিটামিন সি ও সালফার শরীরের বিষাক্ত উপাদান নিঃসরণে সাহায্য করে যা কিনা আর্থারাইটিস, বিভিন্ন চর্মরোগ ও গেঁটেবাতের জন্য দায়ী।

– ক্যান্সারবিরোধি এনজাইমের কার্যকারিতা বৃদ্ধি করে ক্যান্সার কোষ বাড়তে বাধা দেয়।

– এর পটাশিয়াম ধমনী পরিস্কার রাখে এবং রক্তচলাচল স্বাভাবিক রাখে। এতে উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি কমে।

– লাল বাঁধাকপির রেড পিগমেন্ট রক্তের সুগার কমায় এবং ইনস্যুলিন উৎপাদন বাড়িয়ে দেয়। সুতরাং ডায়বেটিস রোগীদের জন্য উপকারি।

সতর্কতা: যাদের থাইরয়েড সমস্যা আছে তাদের বেশি পরিমানে বাঁধাকপি খাওয়া উচিত হবে না। এটি থাইরয়েডগ্রন্থির প্রয়োজনীয় আয়োডিন শোষণে বাধা দেয়।

Comments