বায়ু শোধনকারী সাইকেল!

Print Friendly, PDF & Email

ঢাকা; সোমবার: ভাবুন তো একবার। আপনি সাইকেল চালিয়ে অফিসে যাচ্ছেন। একদিকে আপনার ব্যয়াম হচ্ছে।হৃদপিন্ড ভালো থাকছে । অন্যদিকে আপনি যান্ত্রিক বাহন যেহেতু এড়িয়ে চলছেন,তাই জ্বালানী খরচ বেচে যাচ্ছে, পরিবেশ দূষন বন্ধ হচ্ছে। কেমন হবে,আপনার ঐ সাইকেলটি যদি যা্ওয়ার পথে স্বয়ংক্রিয় ভাবে আশে পাশের বায়ু শোধন করতে করতে যায়। একের ভিতের বহুগুন কি প্রতিষ্ঠিত হলো?

bi-cycle

ঘটনা গল্পের মত শোনালেও বিজ্ঞানীরা এমন-ই এক সাইকেল এর আবিষ্কার করেছেন যা চলতি পথে বায়ু শোধন করতে করতে আগাবে। ব্যাংককের লাইট ফগ ক্রিয়েটিভ অ্যান্ড ডিজাইন কোম্পানি তৈরি করেছে এই পরিবেশবান্ধব সাইকেল বাইক। বাইকটিতে অ্যালুমিনিয়ামের তৈরি একটি ফ্রেম আছে। যেখানে ফটোসিসিনথেসিস প্রক্রিয়াটি অবিরত চলতে থাকবে। এখানে লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারির সাহায্যে কৃত্রিম উপায়ে বিদ্যুৎ তৈরি হবে।

 বিশ্বের বহু শহরে প্রতিদিনই কল-কারখানা আর যানবাহন থেকে নির্গত হয় ধোঁয়া। যাতে চরম আকার ধারণ করছে বায়ু দূষণ। ফলে অনেক মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে নানা রকম রোগে। বায়ুকে দূষণমুক্ত করতে বিজ্ঞানীরা যে সাইকলে আবিষ্কার তাতে, পথ ধরে চলার সময় আশেপাশের দূষিত বায়ুকে শোধন করতে করতে এগুবে। এই বিদ্যুতের সাহায্যে জলের মধ্যে বিক্রিয়া ঘটিয়ে অক্সিজেন উৎপাদন করা হবে। চলন্ত অবস্থায় বাইকটি থেকে অক্সিজেন বেরিয়ে পরিবেশের সাথে মিশবে যাবে। ফলে বায়ুমণ্ডলে অক্সিজেনের পরিমাণ বাড়বে ও দূষণ কমবে।

তবে বিষয়টি এখনও পরীক্ষামূলক অবস্থায় রয়েছে। বাণিজ্যিকভাবে এখনো কোনো পরিবেশবান্ধব বাইক তৈরি করা হয়নি। নির্মাণকারী সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, প্রাথমিকভাবে কয়েকটি বাইক পথে নামানো হয়েছে। সুবিধা-অসুবিধা-কার্যকারিতা খতিয়ে দেখে তবেই বেশি সংখ্যক বাইক ছাড়া হবে বাজারে। এখন এই বাইকগুলোর দাম নির্ধারণ করা হয়নি।

গ্রীনটেক ডেস্ক

Comments