সুন্দরবন অভিমুখী বাম মোর্চার সমাবেশে পুলিশের লাঠিচার্জ, আহত ২০

Print Friendly, PDF & Email

সবুজপাতা ডেস্ক, ১৬ অক্টোবরঃ  সুন্দরবন অভিমুখী গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার রামপালে কয়লা বিদুৎ প্রকল্প বাতিলের দাবিতে রোডমার্চের মানিকগঞ্জের সমাবেশে পুলিশ লাঠিচার্জ করেছে। এতে সাংবাদিকসহ অন্তত ২০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

শুক্রবার বিকাল ৪টার দিকে এই লাঠিচার্জের ঘটনা ঘটে।

আহতের মধ্যে পিপলস্ গণতান্ত্রিক পার্টির সভাপতি মোশরেফা মিশু, দৈনিক আমাদের সময়ের প্রতিনিধি শহিদুল ইসলাম সুজন রয়েছেন।

মানিকগঞ্জ জেলা ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি আশরাফুর রহমান জানান, তাদের পুর্বনির্ধারিত বাম মোর্চার সমাবেশ ছিল। বিকাল ৪টা নাগাদ ঢাকা থেকে আসা সুন্দরবন অভিমুখী রোডমার্চের গাড়িবহর মানিকগঞ্জে পৌঁছালে গাড়ি থেকে নামার সময়ই বাধা দেয় পুলিশ।

পরে রোডমার্চের গাড়িরবহর শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে অবস্থান নিয়ে সমাবেশের চেষ্টা করলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে। এ সময় পিপলস্ গণতান্ত্রিক পার্টির সভাপতি মোশরেফা মিশুসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়। পুলিশের লাঠিচার্জে দৈনিক আমাদের সময় পত্রিকার মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি শহিদুল ইসলাম সুজনও আহত হন।

মানিকগঞ্জ পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান জানান, বাম মোর্চার মানিকগঞ্জে সমাবেশের কোনো অনুমতি না থাকায় পুলিশ সমাবেশে বাধা দিয়েছে। তিনি ‘মৃদু লাঠিচার্জের’ কথা স্বীকার করেন।

রামপালে কয়লা বিদুৎ প্রকল্প বাতিলের দাবিতে সুন্দরবন অভিমুখী বাম মোর্চার রোডমার্চের সমাবেশে অংশ নেয়া রাজনৈতিক দলের মধ্যে ছিল বাংলাদেশ বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট পার্টি, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টি, শ্রমিক কৃষক সমাজবাদী দল ও গণতান্ত্রিক আন্দোলনসহ কয়েকটি দল।

পরে বাম মোর্চার নেতারা বিজয় মেলা মাঠে তাদের সমাবেশ করে।

Comments