উন্নয়ন আর সবুজের সম্পর্ক সাংঘর্ষিক হওয়া উচিত নয়- প্রণব মুখার্জি

ঢাকা;বৃহস্পতিবার।
ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির বিশ্বাস, উন্নয়ন আর সবুজের সম্পর্ক সাংঘর্ষিক হওয়া উচিত নয়। তার মতে, উন্নয়নের ধারণাকে পুনঃসঙ্গায়িত করা প্রয়োজন যেন পরিবেশগত বিবেচনা এবং উন্নয়নমূলক প্রয়জনীয়তা সাংঘর্ষিক না হয়। গত সোমবার পূর্ব সিকিম জেলার সারামসায় শিশুদের জন্য ৪০তম জহরলাল নেহেরু জাতীয় বিজ্ঞান, গণিত ও পরিবেশ প্রদর্শনীর উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।
new president elect
মুখার্জি বলেন, “দেশ ভবিষ্যতের জন্য প্রয়োজনীয় সম্পদ সংরক্ষণ ও সবসময়ের মৌলিক চাহিদা পূরণের কাজ এর সংঘর্ষের মুখোমুখি হচ্ছে- জনসংখ্যা বৃদ্ধির ফলে। রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি আরও বলেন, “উন্নয়নের ধারণাটিকে বৃহৎ পরিসরে পুনঃসঙ্গায়িত করার এখনই সময়। পরিবেশগত বিবেচনা এবং উন্নয়নমূলক প্রয়জনীয়তার মাঝে কোনোরকম দ্বন্দ্ব হওয়া উচিত নয়।প্রদর্শনীটি ভারতের প্রথম শিক্ষামন্ত্রী মাওলানা আবুল কালাম আজাদের ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়জন করা হয়েছিল।
পৃথিবীর জনসংখ্যা এক লক্ষ কোটি ছাড়িয়ে গিয়েছে যার ৬ ভাগের ১ ভাগ ভারতের উল্লেখ করে তিনি বলেন যে পরবর্তীতে দারিদ্র্য, ক্ষুধা, অপুষ্টি এবং নিরক্ষরতার সমস্যা আরও জটিল হবে যদি তাৎক্ষনিকভাবে উপযুক্ত পদক্ষেপ না নেয়া হয়।
রাষ্ট্রপতি বলেন, “আমাদের শিশুদের অনিয়ন্ত্রিত জনসংখ্যা বৃদ্ধি, শক্তি সঙ্কট, প্রাকৃতিক সম্পদ হ্রাস, পরিবেশ দূষণ ও আরও বিভিন্ন বিষয়ের যোগসূত্র সম্বন্ধে সচেতন করা জরুরী।“ তিনি বিজ্ঞান ও গনিতের প্রচারণা এবং শিশুদের মাঝে বিজ্ঞানের উত্তেজনা ছড়িয়ে দিতে এনসিইআরটি এর প্রচেষ্টাকে অভিনন্দন জানান।
“বিজ্ঞান ও সমাজ” বিষয়ে ১৭০ টি অদ্ভুত প্রদর্শন প্রদর্শিত হয় অনুষ্ঠানে। সেখানে আরও উপস্থিত ছিলেন সিকিমের গভর্নর শ্রিনিওয়াস পাতিল, মুখ্যমন্ত্রী পবন চামলিন এবং ইউনিয়ন মন্ত্রী শশী থারুর। গভর্নর বলেন, প্রদর্শনীটি হচ্ছে পুরো জাতির শিক্ষার্থীদের মধ্যে চিন্তা ও মত বিনিময়ের একটি প্ল্যাটফর্ম। সিকিমকে প্রদর্শনীর নিমন্ত্রণকারী হিসেবে বেছে নেয়ায় মুখ্যমন্ত্রী এনসিইআরটি এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
খবর: পিটিআই

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top