চলতি মাসে এক থেকে দুইটি শৈত্যপ্রবাহ

14589228

 

 

সবুজপাতা ডেস্ক, ৩ জানুয়ারি : চলতি মাসে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে এক থেকে দুইটি মাঝারী শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে।
বৃহস্পতিবার বিকালে আবহাওয়া অধিদপ্তরের দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসে গঠিত বিশেষজ্ঞ কমিটির বৈঠকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

উর্দ্ধাকাশের আবহাওয়া বিন্যাস, বায়ুমন্ডলের বিভিন্ন স্তরের আবহাওয়ার মানচিত্র, জলবায়ু রিগ্রেশন ও এনালগ মডেল, বিশ্লেষণ করে আবহ্ওায়ার দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাস কমিটি জানায়, জানুয়ারি মাসে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে এবং নদ-নদী অববাহিকায় মাঝারী/ঘন কুয়াশা এবং অন্যত্র হালকা/ মাঝারী কুয়াশা পড়তে পারে।

জানুয়ারি মাসে সামগ্রিকভাবে দেশে স্বাভাবিকের চেয়ে ২০ শতাংশ কম বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা আছে।

আবহ্ওায়া অধিদপ্তরের বিশেষজ্ঞ কমিটি সূত্রে জানা যায়, বিদায়ী বছরের ১৯ থেকে ২১ ডিসেম্বর ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগে হালকা কিছু বৃষ্টিপাত হয়। এ ছাড়া সারা দেশে তেমন কোন বৃষ্টিপাত হয়নি।
২ ডিসেম্বর দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি সুস্পষ্ট লঘুচাপ সৃষ্টি হয়। ৬ ডিসেম্বর সুস্পষ্ট লঘুচাপটি নিম্নচাপে পরিণত হয়। ৭ ডিসেম্বর নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড় ‘ম্যাডি’-এ রূপ নেয়। পরবর্তীতে এটি আরও ঘণীভূত হয়ে প্রথমে প্রবল ঘূর্ণিঝড় ও পরে অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘ম্যাডি’-এ পরিণত হয়।

১৬ থেকে ১৮ ডিসেম্বর এবং ২৬ থেকে ৩১ ডিসেম্বর দেশের কয়েকটি অঞ্চলের ওপর দিয়ে মৃদু ধরণের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যায়। সেই সময়ে ১৮ ডিসেম্বর দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস শ্রীমঙ্গলে রেকর্ড করা হয়।
ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস, তাপমাত্রা, কুয়াশা ও শৈত্যপ্রবাহের পূর্বাভাস এবং কৃষি আবহাওয়ার পূর্বাভাসসহ দেশের নদ-নদীর অবস্থা ডিসেম্বর ২০১৩ মাসের পূর্বাভাসের সাথে সংগতিপূর্ণ ছিল বলে বিশেষজ্ঞ কমিটির বৈঠকে জানানো হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top