Homeবন ও বণ্যপ্রানী (Page 8)
Archive

ঢাকা,২২ অক্টোবরঃ গত ৪০ বছরে পৃথিবীতে বিচরণকারী বন্যপ্রাণীর সংখ্যা প্রায় অর্ধেকে নেমে এসেছে বলে সুইজারল্যান্ডভিত্তিক ওয়ার্ল্ড ওয়াল্ডলাইফ ফান্ড (ডব্লিউডব্লিউএফ) ও জুয়োলজিক্যাল সোসাইটি অব লন্ডনের (জেডএসএল) এক গবেষণায় বলা হয়েছে। গত মঙ্গলবার গবেষণার প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়। খবর বিবিসির।গবেষণায় দেখা গেছে, ১৯৭০ সালের তুলনায় ২০১০ সালে

শেরপুর,২১ অক্টোবরঃ গত শনিবার গভীর রাতে শেরপুরের শ্রীবরদীর সীমান্তবর্তী রাণিশিমূল ইউনিয়নের রাঙ্গাজান গ্রামে বন্য হাতির আক্রমণে ২ জন গুরুতর আহত হয়েছেন।আহতরা হলেন ওই গ্রামের হাসমত আলীর ছেলে শাহজাহান (৪০) ও কছিমদ্দিনের ছেলে অবিজল (৫০)। তাদের মধ্যে অবিজল শেরপুর সদর হাসপাতালে ও শাহজাহান ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এখনো  চিকিৎসাধীন

সবুজপাতা ডেস্ক, ঢাকা:বাঘ সংরক্ষণে সরকার সব ধরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।রোববার দ্বিতীয় বিশ্ব বাঘ স্টকটেকিং সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কথা জানান।তিনিবলেন, জনসংখ্যা বৃদ্ধি, অপরিকল্পিতভাবে শিল্প-কারখানা তৈরি, বনভূমি ধ্বংসএবং সার্বিকভাবে অর্থনৈতিক উন্নয়নের চাপে বাঘের প্রাকৃতিক আবাসস্থল দিন দিনকমে আসছে।গত

রাজধানীতে এইকই পরিবারের ৪ জন মারা গেছে পটকা মাছ খেয়ে। বাকী ২ জন এখন্ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎধীন। তবে এটি-ই একমাত্র মৃত্যু সংবাদ নয়, প্রায় প্রতি বছর-পটকা মাছে মৃত্যুর খবর শোনা যায়।  মাছে ভাতে বাঙালী আমরা,তাই মাছেই আমাদের পুষ্টি, আবার মাছেই জীবন যাপন। কিন্তু কোন

২০১০ সালের ২০ থেকে ২৪ নভেম্বর রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে ‘টাইগার সামিট’ অনুষ্ঠিত হয়। এতে ঘোষণার মূল বিষয়গুলো ছিল ,বাঘের আবাসস্থল হিসেবে চিহ্নিত বনাঞ্চলগুলোকে সর্বাধিক গুরুত্বের সঙ্গে সংরক্ষণ ও ব্যবস্থাপনা, বাঘের আবাসস্থালকে জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণের মূল আধার হিসেবে চিহ্নিত করে কর্ম পরিকল্পনা গ্রহণ, বাঘ সমৃদ্ধ বনাঞ্চলে কোনো

ঢাকা, ৩ জুলাই: পরিবেশ ও বনমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন বলেছেন, ব্যক্তিগত উদ্যোগে হরিণ লালন-পালন করা যাবে। এ জন্য বিধি প্রণয়নের কাজ চলছে। আজ বৃহস্পতিবার সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে মন্ত্রী এ তথ্য জানান। হরিণ লালন-পালন নিয়ে কিশোরগঞ্জ-২ আসনের সাংসদ সোহরাব উদ্দিনের এক প্রশ্নের জবাবে পরিবেশ ও বনমন্ত্রী বলেন, ২০০৯ সালে

সবুজপাতা ডেস্ক: “সাতাও” ছিল তার নাম। কেনিয়ার অন্যতম এবং সবচেয়ে খ্যাতনামা হাতিটিকে শিকারিরা তার লম্বা দাঁতের লোভে মেরে ফেলল সাতাওকে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন এটা একটা “বিরাট” ক্ষতি।সাতাও এর বিচরণ ছিল পূর্ব জাভো জাতীয় উদ্যানে। জাভো ট্রাস্টের মতে এই অঞ্চল বন্য প্রাণী এবং আঞ্চলিক গোষ্ঠীর জন্য অলাভজনক। শিকারীরা

ঢাকা; ১৭ জুন:  ঢাকা শহরে রাস্তার ধারে গাছে অনেক পাখির বাসা দেখা যায়। এখনো ঢাকা শহরের প্রাণ কেন্দ্রে অনেক পাখি বাসা বুনে। ঢাকা শহরের বিভিন্ন পাখির বাসা আর গুগুলে সার্চ  দিয়ে তা সম্পর্কে কিছু বর্ননা এখানে প্রকাশিত । সকল ছবি ঢাকা শহরের বিভিন্ন রাস্তার ধারের

/