দূষিত নগর বেইজিং এখন সচ্ছ ও নির্মল ; কিভাবে ?

Print Friendly

সবুজপাতা ডেস্ক, ১২ সেপ্টেম্বরঃ বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত যে নগরী, তার নাম কি জানেন? শুধু আপনি কেন, সামান্য খোঁজখবর যারা রাখেন, নিশ্চিত ভাবেই বলবেন বেজিং। বেজিং যে বিশ্বের সব চাইতে দূষিত শহর, এ নিয়ে কারও দ্বিমত নেই। কিন্তু, সেই অপবাদ আজ অতীত। মাত্র কয়েক দিনে বেজিং বদলে ফেলেছে নিজেকে। এতটাই বদলেছে, সেদিনের বেইজিংয়ের সঙ্গে এদিনের বেইজিংকে মেলাতে পারবেন না।

যেখানে বিশ্বের অনেক শহর দূষণে নাজেহাল, সেখানে বেজিং-এর পক্ষে এই পরিবর্তন সম্ভব হলো কী ভাবে?

দূষণ নগরীর তকমা ঝেরে ফেলতে কঠিন হতে হয়েছে বেজিংকে। ২০ আগস্ট থেকে ৩ সেপ্টেম্বর। হাতেগোনা মাত্র কয়েকটা দিন। যে সমস্ত গাড়ি তীব্র দূষণ ছড়াচ্ছিল, এই ক’দিনে বেছে বেছে তাদের বাতিল করা হয়। দূষণ ঠেকানোয় নজর দেয়নি, এমন কলকারখানাগুলোর বিরুদ্ধেও কড়া পদক্ষেপ করা হয়েছে।

কড়া হওয়ার ফল, হাতেনাতেই পেয়েছে চীনের রাজধানী শহর। স্বাভাবিক দিনে বেইজিংয়ের আকাশ থাকে ধূসর-রঙা। নীল আকাশ কবে শেষ দেখেছিলেন বেজিংয়ের বাসিন্দারা, তা কারও স্মরণে নেই। সেই বেজিংয়ের আকাশ এখন আবার ঝকঝকে নীল, যাকে বলে খাস্তা নীল। আগে চারপাশের ধোঁয়াশায় একটু দূর থেকেও বাড়িঘর দেখা যেত না। ঘষা কাচে দেখার মতোই দেখতে হতো। এখন সেই ধোঁয়াশা কেটে স্বচ্ছ চারপাশ।

ভাসমান ধূলিকণা কমেছে ৭৩.২%। যার জন্য দূষণের আন্তর্জাতিক মাপকাঠিতে ৫০০ থেকে ১৭ নেমে এসেছে চীনের রাজধানী শহর।

জানা গিয়েছে, দূষণে লাগাম পরাতে আগামী পাঁচ বছরে ২৩০ বিলিয়ন ডলার খরচ করবে চায়না। দূষণ ঠেকাতে বেইজিং শহরে নামানো হচ্ছে ইলেকট্রিক ট্যাক্সি। উলটো দিকে গ্যাসের ব্যবহার কমাতে কর চাপানো হচ্ছে।- সংবাদসংস্থা

Comments