Homeeditor৫ বছরে বন ও পরিবেশ মন্ত্রী পরিবারের আয় বেড়েছে ৪০ গুন!

৫ বছরে বন ও পরিবেশ মন্ত্রী পরিবারের আয় বেড়েছে ৪০ গুন!

ঢাকা; শুক্রবার:  গত ৫ বছরে মন্ত্রী থাকাকালীন বন ও পরিবেশ মন্ত্রী ড.হাছান মাহমুদ ও তার পরিবারের সম্পদের পরিমান বেড়েছে তার আগের জমা দেয়া হিসাবের তুলনায় ৪০ গুন বেশি। ২০০৮ সালে তার সর্বমোট সম্পদ ছিল ৩৮.১৭ লাখ টাকা, এখন সর্বশেষ হিসেবে তা ৪০ গুন বেড়ে দাড়িয়েছে ১৫ কোটি ৪৬ লক্ষ টাকায়। নির্বাচন কমিশনে জমা দেয়া হলফনামা তথ্য ঘেটে এমন সম্পদবৃদ্ধির চিত্র পাওয়া গেছে।

20120514-hasan-460

তার দেখানো হিসেবে ৫ বছর আগে মিসেস মাহসুদ, মন্ত্রীর পত্নী নূরুন ফাতেমার সাধারণ গৃহীনি হিসেবে সম্পদ ছিল ৬০ হাজার টাকা মাত্র। সর্বশেষ হিসেবে তার সম্পদ ২২৯০ গুন বেড়ে দাড়িয়েছে ১৩ কোটি ৭৪ লক্ষ টাকায়।

ইংরেজি দৈনিক, ডেইলি স্টারে প্রকাশিত সংবাদে মন্ত্রী অবস্য এটাকে সাধারন উন্নতি উল্লেখ করে বলেছেন, বিসমিল্লাহ মেরিন সার্ভিস নামে তার একটা গভীর সমুদ্রবাহী কন্টেইনার সার্ভিস আছে,সেটাই আয়ের উৎস। এই সার্ভিসের শুরু হয়েছিল ২০০৮ সালের দিকে। যদিও অনুসন্ধানে দেখে গেছে এই নামে কোন কোম্পানি বাংলাদেশ শিপিং এজেন্টস এর সাথে নিবন্ধিত নয়।

তার এবং তার স্ত্রীর সম্পদ বিবরনী ঘেটে দেখলে পাওয়া যায়, মন্ত্রী হাছান মাহমুদের বাৎসরিক আয়  যেখানে ১৮ লাখ টাকা,সেখানে মিসেস মাহমুদের আয় প্রায় ২ কোটি টাকা।  ২০০৮ সালে তাদের যৌথ আয় ছিল বছরে ১৯ লাখ টাকার মত। সব হিসেবে এই ৫ বছরে তার স্ত্রী একজন গৃহীনি থেকে বিপুল সম্পদের অধিকারী হয়েছেন।

এবছর তার প্রদর্শিত সম্পদ বিবরনীতে তিনি দেখিয়েছেন,মন্ত্রী এবং সংসদ সদস্য হিসেবে বিভিন্ন ভাবে সন্মাননা বাবদ আয় করেছেন ১৬ লাখ ৩০ হাজার টাকা। অন্যদিকে,বাড়ি ভাড়া থেকে আয় করেছেন ১ লক্ষ ২ হাজার টাকা আর ব্যাংকের সেভিংস এ্যাকান্টস এবং ব্যাংক সুদ থেকে ১ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা।

১৯৬৩ সালে জন্মগ্রহন করা হাছান মাহমুদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রত্ব অবস্থায় আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত হন। ২০০৮ সালেই প্রথম  চট্টগ্রাম-৭ আসন থেকে, সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন তিনি। আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

নিজস্ব প্রতিবেদন

No comments

leave a comment