Homeগ্রিন আইকনশুধু প্রকৃতিবিদ নয়, দ্বিজেন শর্মাই একটি উদ্যান

শুধু প্রকৃতিবিদ নয়, দ্বিজেন শর্মাই একটি উদ্যান

ঢাকা,১৩ জুন: দ্বিজেন শর্মা এমন একজন ব্যক্তি যিনি নিসর্গ ও প্রকৃতি নিয়ে অনবরত লিখে যাচ্ছেন। দ্বিজেন শর্মাকে অনুসরণ করে অনেকে অনুপ্রাণিত হয়েছেন। প্রকৃতি নিয়ে আমাদের সচেতন হওয়া কত বেশি জরুরি সারা জীবন দিয়ে দ্বিজেন শর্মা তা প্রমাণ করেছেন। দ্বিজেন শর্মা আমাদের চোখ খুলে দিয়েছেন।

বরেণ্য নিসর্গবিদ দ্বিজেন শর্মার ৮৫তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে চিরতরুণ এই প্রকৃতিবিদের এভাবেই প্রশংসা করেছেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। তরুপল্লব এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। শুক্রবার বিকেলে কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরির শওকত ওসমান মিলনায়তনে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ছাড়াও দিনব্যাপী আলোকচিত্র, তথ্যচিত্র প্রদর্শনী ও শিশু চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন ছিল।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান বলেন, বিশেষজ্ঞ প্রকৃতিবিদ দ্বিজেন শর্মা আমাদের দেশের গাছপালাকে সমৃদ্ধ করার জন্য রোদে পুড়ে, বৃষ্টিতে ভিজে কখনো রমনা, কখনো সোহরাওয়ার্দী, বাংলা একাডেমিসহ বিভিন্ন জায়গায় গিয়েছেন নিজের পকেটের টাকা খরচ করে। তার মতো প্রকৃতিপ্রেমী সত্যি বিরল।

বিপ্রদাস বড়ুয়া বলেন, দ্বিজেন শর্মা যে কথাগুলো তার বইতে লিখেছেন তা নিয়ে আমাদের একটু ভাবা দরকার।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন- পানি বিশেষজ্ঞ ড. আইনুন নিশাত, পাখি বিশেষজ্ঞ এনামুল হক, কবি নির্মলেন্দু গুণ, নাট্য ব্যক্তিত্ব আলী যাকের, প্রকাশক মফিদুল হক, দ্বিজেন শর্মার সহধর্মীনী ড. দেবী শর্মা, ড. প্রতিভা মুদসুদ্দী, ড. ইশতিয়াক আহমেদ প্রমুখ।

তারা বলেন, দ্বিজেন শর্মা শুধু প্রকৃতিবিদ নয় তিনি নিজেই একটি উদ্যান। তিনি যেভাবে বলেন, সেভাবে পরিকল্পনা করতে পারলে আমাদের অনেক সমস্যার সমাধান হতো। আমরা যদি প্রকৃতির কাছে ফিরে আসতে পারি তাহলে আমরা আমাদের কাছেই ফিরে আসবো। ঢাকা শহরেকে পরিকল্পিতভাবে কাজে লাগাতে পারলে এর শোভা অনেক বৃদ্ধি পাবে। এ ব্যাপারে দ্বিজেনশর্মার মতো লোকেরা ভালো নির্দেশনা দিতে পারে।

ড. হায়াত মাহমুদের সভাপতিত্বে সংবাধনা অনুষ্ঠানে দ্বিজেন শর্মার সংক্ষিপ্ত জীবনী পড়ে শোনান তনুশা রহমান। স্বাগত বক্তব্য দেন তরু পল্লবের মোকারম হোসেন।

অনুষ্ঠানে অতিথিরা প্রকৃতিপুত্র দ্বিজেন শর্মা বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন। কথা প্রকাশ থেকে বইটি প্রকাশ করেন প্রকাশক জমিস উদ্দিন।

সবুজপাতা প্রতিবেদক

No comments

Sorry, the comment form is closed at this time.