Homeসবুজে যাত্রারাতারগুল রক্ষায় ‘সবুজ বিপ্লব সমিতি’

রাতারগুল রক্ষায় ‘সবুজ বিপ্লব সমিতি’

সিলেট অফিস: বাংলাদেশের একমাত্র জলবন (সোয়াম্প ফরেস্ট)রাতারগুলকে রক্ষা,  রাতারগুল গ্রামে বন সুরক্ষায় স্থানীয়দের সচেতন করা, বনায়ন বাড়ানো আর বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে আত্মনির্ভরশীল হয়ে ওঠার প্রত্যয়ে গঠিত হয়েছে নতুন একটি সংগঠন -রাতারগুল সবুজ বিপ্লব সমিতি। গত ২ আগস্ট, শনিবার রাতারগুল গ্রাম থেকে বনের পথে রাস্তার দু’ধারে প্রায় দুই শতাধিক বৃক্ষ রোপনের মধ্য দিয়ে এ সমিতির যাত্রা শুরু হয়। গ্রামের বৃদ্ধ, যুবক, শিশু সব বয়সের মানুষ উপস্থিতে গাছের চারা রোপন করার মাধ্যমে সমিতির কার্যক্রম শুরু করা হয়।

“অধিক গাছ লাগাবো, গাছের পরিচর্যা নেবো”- এমন শ্লোগান মুখে নিয়ে মধ্য বিকেল সাড়ে ৩টায় শেষ হয় বৃক্ষ রোপন অভিযান। এর আগে দুপুর ১টার দিকে রাতারগুল গ্রামে অনুষ্ঠিত এক সুধি সমাবেশে বক্তারা রাতারগুল বন রক্ষায় গ্রামের সকল শ্রেণীপেশার মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।

Ratergul

বাংলাদেশের একমাত্র জলাবন বা সোয়াম্প ফরেস্ট এবং বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য। বনের আয়তন ৩,৩২৫.৬১ একর, আর এর মধ্যে ৫০৪ একর বনকে ১৯৭৩ সালে বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য হিসেবে ঘোষণা করা হয়।সিলেট জেলার গোয়াইনঘাটের ফতেহপুর ইউনিয়নে, গুয়াইন নদীর দক্ষিণে এই বনের অবস্থান। বনের দক্ষিণ দিকে আবার রয়েছে দুটি হাওর: শিমুল বিল হাওর ও নেওয়া বিল হাওর। সিলেট শহর থেকে এর দূরত ২৬ কিলোমিটার। বর্ষাকালে এই বনে অথৈ জল থাকে চার মাস। তারপর ছোট ছোট খালগুলো হয়ে যায় পয়ে-চলা পথ। আর তখন পানির আশ্রয় হয় বন বিভাগের খোঁড়া বিলগুলোতে। সেখানেই আশ্রয় নেয় জলজ প্রাণীকুল।

এলাকার মুরব্বি মো. আলী আকবরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সুধি সমাবেশে বক্তারা বলেন, আমাদের বাপ-দাদারা এই বনকে টিকিয়ে রেখেছেন নিজেদের উপার্জনের উৎস মনে করে। আজ রাতারগুল বিশ্ব দরবারে পরিচিতি লাভ করেছে। এটা আমাদের গর্ব। আর তাই এই বনকে যেকোন মূল্যে রক্ষা করতে রাতারগুল গ্রামবাসী বদ্ধ পরিকর।

বক্তারা রাতারগুল সোয়াম্প ফরেস্ট রক্ষায় গাছকাটা থেকে শুরু করে বনের ক্ষতি হয় এমন যেকোন কর্মকান্ড থেকে বিরত থাকতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, আমরা বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করবো। কুঠির শিল্প বিকশিত করে, বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে জমির ব্যবহার নিশ্চিত করার মাধ্যমে নিজেদের আয়ের পথ খুঁজে নেবো। আর পর্যটক আকর্ষণ বাড়াতে রাতারগুল গ্রামকে একটি মডেল গ্রামে রূপান্তরিত করেবো। এজন্যই গড়ে তোলা হয়েছে রাতারগুল সবুজ বিপ্লব সমিতি।

মো. গিয়াস উদ্দিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানের শুরু হয় কোরআন তেলাওয়াত এর মাধ্যমে।স্বাগত বক্তব্য রাখেন ভূমিসন্তান বাংলাদেশ’র সমন্বয়ক আশরাফুল কবীর। বক্তব্য রাখেন, রাতারগুল সবুজ বিপ্লব সমিতি’র আহ্বায়ক মো. মুখলেছুর রহমান, সদস্য সচিব মো. আব্দুল কাদির সহ রাতারগুল এলাকার স্থানীয় মুরুব্বীগণ

গোলজার আহমেদ, সংবাদ কর্মী

সিলেট।

Post Tags
No comments

Sorry, the comment form is closed at this time.